কুলাউড়ায় পুলিশ পরিচয়ে পুলিশের বাড়িতে হামলা-লুটপাট : আহত ৩

September 5, 2013, এই সংবাদটি ৪৮০ বার পঠিত

কুলাউড়ার বরমচাল ইউনিয়নের কলিমাবাদে পুলিশ পরিচয়ে পুলিশের বাড়িতে হামলায় আহত হয়েছেন শিশুসহ ৩জন। গত ৪ সেপ্টেম্বর বুধবার ভোর রাতে উপজেলার কলিমাবাদ গ্রামে পুলিশ কনষ্টেবল চুনু মিয়ার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন মৃত হাসমত উল¬াহর ছেলে ইউনুস মিয়া (৪২), কনষ্টেবল চুনু মিয়ার ছেলে সুলেমান মিয়া (২৩) ও ইউনুছ মিয়ার মেয়ে রুমেনা বেগম(৯)। আহতদের গুরুতর অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকের কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জানা গেছে, প্রতিবেশী আফতাব মিয়ার সাথে জায়গা জমি নিয়ে পুলিশের কনষ্টেবল চুনু মিয়ার পরিবারের সাথে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলছে। এ নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের মধ্যস্থতায় সালিশ বসার কথা ছিল। কিন্তু সালিশ বসার আগেই গত বুধবার ভোর রাতে কনষ্টেবল চুনু মিয়ার বাড়িতে আফতাব মিয়া তার সহযোগী ৮/১০জন লোক নিয়ে গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয় দিয়ে ঘরের দরজা খুলতে বলে। এ সময় কিছু বুঝে উঠার আগেই ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাদের অতর্কিত হামলায় চুনু মিয়ার পরিবারের লোকজন গুরুতর আহত হন। এ সময় হামলাকারীরা ঘর থেকে ২ভরি স্বর্নালংকার ও নগদ ৫০হাজার টাকা লুটে নেয়। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন সুনামগঞ্জের দিরাই থানায় কর্মরত পুলিশ কনষ্টেবল চুনু মিয়া । এ ব্যাপারে কুলাউড়া থানার ওসি (তদন্ত) দিলীপ কুমার দাস জানান, পুলিশের কনষ্টেবল পদে কর্মরত চুনু মিয়ার সাথে জমি জমা নিয়ে তার পরিবারের অন্যদের সাথে বিরোধ রয়েছে। ঘটনার খবর পেয়েছি উভয় পক্ষের মামলা থানা এবং কোর্টে রয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।
কুলাউড়ার বরমচাল ইউনিয়নের কলিমাবাদে পুলিশ পরিচয়ে পুলিশের বাড়িতে হামলায় আহত হয়েছেন শিশুসহ ৩জন। গত ৪ সেপ্টেম্বর বুধবার ভোর রাতে উপজেলার কলিমাবাদ গ্রামে পুলিশ কনষ্টেবল চুনু মিয়ার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন মৃত হাসমত উল¬াহর ছেলে ইউনুস মিয়া (৪২), কনষ্টেবল চুনু মিয়ার ছেলে সুলেমান মিয়া (২৩) ও ইউনুছ মিয়ার মেয়ে রুমেনা বেগম(৯)। আহতদের গুরুতর অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকের কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জানা গেছে, প্রতিবেশী আফতাব মিয়ার সাথে জায়গা জমি নিয়ে পুলিশের কনষ্টেবল চুনু মিয়ার পরিবারের সাথে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলছে। এ নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের মধ্যস্থতায় সালিশ বসার কথা ছিল। কিন্তু সালিশ বসার আগেই গত বুধবার ভোর রাতে কনষ্টেবল চুনু মিয়ার বাড়িতে আফতাব মিয়া তার সহযোগী ৮/১০জন লোক নিয়ে গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয় দিয়ে ঘরের দরজা খুলতে বলে। এ সময় কিছু বুঝে উঠার আগেই ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাদের অতর্কিত হামলায় চুনু মিয়ার পরিবারের লোকজন গুরুতর আহত হন। এ সময় হামলাকারীরা ঘর থেকে ২ভরি স্বর্নালংকার ও নগদ ৫০হাজার টাকা লুটে নেয়। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন সুনামগঞ্জের দিরাই থানায় কর্মরত পুলিশ কনষ্টেবল চুনু মিয়া । এ ব্যাপারে কুলাউড়া থানার ওসি (তদন্ত) দিলীপ কুমার দাস জানান, পুলিশের কনষ্টেবল পদে কর্মরত চুনু মিয়ার সাথে জমি জমা নিয়ে তার পরিবারের অন্যদের সাথে বিরোধ রয়েছে। ঘটনার খবর পেয়েছি উভয় পক্ষের মামলা থানা এবং কোর্টে রয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। কুলাউড়া অফিস॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •