মনুনদীতে লাখো মানুষের উপস্থিতিতে ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

August 25, 2013, এই সংবাদটি ১৯৯ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার॥ গ্রামবাংলার ঐতিহ্যবাহি নৌকা বাইচ প্রতিযোগীতা মৌলভীবাজার শহরের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া মনুনদীতে অনুষ্ঠিত হয়েছে। দর্শকদের করতালী আর বাদ্যযন্ত্রের ধ্বনি ও বৈঠার তালে তালে অনন্য ঢেউ খেলে নদী তীরের মানুষের মধ্যে। ঢোল ও তবলার তাল, আর বৈঠার স্পন্দনের মূর্হুমূর্হু তরঙ্গ দর্শকের মনে আনন্দের ঢেউ তোলে। গতকাল শনিবার ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা উপভোগ করতে মনুনদীর দুই পাড়ে জোড়ো হন লাখো মানুষ। মৌলভীবাজার জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে অনুষ্ঠিত এ নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতায় দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আগত ৯ টি নৌকা অংশ নেয়। নৌকা বাইচ প্রতিযোগীতা দূপুর ১ ঘটিকা থেকে শুরু হয় এবং সন্ধ্যা ৬ ঘটিকা পর্যন্ত টানা ৫ ঘন্টা এ প্রতিযোগীতা চলে। মনু নদীর চাঁদনীঘাট ব্রীজ পয়েন্ট থেকে বড়হাট খেঁয়াঘাট পয়েন্ট পর্যন্ত ৩ কিঃমিঃ এলাকায় এ দৌড় অনুষ্টিত হয়। প্রতিযোগীতায় প্রথম স্থান অর্জন করে অন্তহরির অজ্ঞান ঠাকুরের নৌকা, দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে রাজনগরের রূপ মিয়ার নৌকা এবং তৃতীয় স্থান অর্জন করে সুনামগঞ্জের জলপ্রবন নৌকা। প্রতিযোগীতা শেষে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরন করেন জেলাপ্রশাসক মোঃ কামরুল হাসান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সাবেক মহিলা সংসদ সদস্য হুসনে আরা ওয়াহিদ, পুলিশ সুপার তোফায়েল আহমদ, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নেছার আহমদ, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মিছবাহুর রহমান, ফজলুর রহমান ফজলু প্রমুখ।
গ্রামবাংলার ঐতিহ্যবাহি নৌকা বাইচ প্রতিযোগীতা মৌলভীবাজার শহরের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া মনুনদীতে অনুষ্ঠিত হয়েছে। দর্শকদের করতালী আর বাদ্যযন্ত্রের ধ্বনি ও বৈঠার তালে তালে অনন্য ঢেউ খেলে নদী তীরের মানুষের মধ্যে। ঢোল ও তবলার তাল, আর বৈঠার স্পন্দনের মূর্হুমূর্হু তরঙ্গ দর্শকের মনে আনন্দের ঢেউ তোলে।  গতকাল শনিবার ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা উপভোগ করতে মনুনদীর দুই পাড়ে জোড়ো হন লাখো মানুষ। মৌলভীবাজার জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে অনুষ্ঠিত এ নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতায় দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আগত ৯ টি নৌকা অংশ নেয়।  নৌকা বাইচ প্রতিযোগীতা দূপুর ১ ঘটিকা থেকে শুরু হয় এবং সন্ধ্যা ৬ ঘটিকা পর্যন্ত টানা ৫ ঘন্টা এ প্রতিযোগীতা চলে। মনু নদীর চাঁদনীঘাট ব্রীজ পয়েন্ট থেকে বড়হাট খেঁয়াঘাট পয়েন্ট পর্যন্ত ৩ কিঃমিঃ এলাকায় এ দৌড় অনুষ্টিত হয়।

প্রতিযোগীতায় প্রথম স্থান অর্জন করে অন্তহরির অজ্ঞান ঠাকুরের নৌকা, দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে রাজনগরের রূপ মিয়ার নৌকা এবং তৃতীয় স্থান অর্জন করে সুনামগঞ্জের জলপ্রবন নৌকা। প্রতিযোগীতা শেষে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরন করেন জেলাপ্রশাসক মোঃ কামরুল হাসান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সাবেক মহিলা সংসদ সদস্য হুসনে আরা ওয়াহিদ, পুলিশ সুপার তোফায়েল আহমদ, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নেছার আহমদ, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মিছবাহুর রহমান, ফজলুর রহমান ফজলু প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •