পুলিশ এসল্ট্ মামলায় রাজনগর আইডিয়েল হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক গ্রেপ্তার

September 1, 2013, এই সংবাদটি ৪৪০ বার পঠিত

মৌলভীবাজারের রাজনগরে পুলিশ এসল্ট মামলায় রাজনগর আইডিয়েল হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত ৩১ আগষ্ট শনিবার দুপুরে তার বাসায় থেকে রাজনগর থানার এসআই রতন দেবনাথ তাকে গ্রেপ্তার করেন। গত ১৪ এপ্রিল দিবাগত রাতে রাজনগরের খারপাড়া গ্রামে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের মামলায় তিনি প্রধান আসামী ছিলেন। রাজনগর থানার পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ১৪ এপ্রিল উপজেলার খারপাড়া (বাজুয়া) গ্রামে বাংলা নববর্ষ উদযাপন ও নবনির্মিত একটি ইনডোর উদ্বোধন উপলক্ষে ‘ইসলামি পাঠাগার ও সমাজ কল্যাণ ফোরামে’র উদ্যোগে সকাল থেকেই হামদ-নাত ও কেরাত প্রতিযোগীতার আয়োজন করা হয়েছিল। সন্ধার পরে বক্তব্যের মাধ্যমে শুরু সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এসময় রাত ১০টায় রাজনগর থানার ওসি মো. নাজিম উদ্দীনের নেতৃত্বে দুটি সিএনজি গাড়িতে করে একদল পুলিশ (পূর্বে দায়েরকৃত) শহীদ মিনার ভাংচুরের মামলার আসামী গ্রেপ্তার করতে যায়। পুলিশ ইনডোরের গেটে অবস্থান নিয়ে উপস্থিত দর্শকদের মাঝে তল্লাশি চালিয়ে কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করে। পরে আরো কয়েকজন আসামী গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসার পথে উপস্থিত দর্শক ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এঘটনায় রাজনগর থানার এসআই আবুল হোসেন বাদি হয়ে রাজনগর আইডিয়েল হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলামকে প্রধান আসামী করে মামলা (নং ১৭, তা: ১৫/৪/১৩ইং) করেন। ওই মামলায় রাজনগরস্থ তার বাসা থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এদিকে তাকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন জেলা জামায়াতের আমীর আব্দুল মান্নান, সেক্রেটারী ইঞ্জিনিয়ার শাহেদ আলী, পৌর জামায়াতের আমীর মো. ইয়ামীর আলী, সদর উপজেলা জামায়াতের আমীর মো. আলাউদ্দীন, সেক্রেটারী সৈয়দ তারেকুল হামীদ, রাজনগর উপজেলা জামায়াতের আমীর মাও. হারুনুর রশিদ তালুকদার, সেক্রেটারী আবুর রাইয়ান শাহিন প্রমুখ। বিবৃতিতে তারা বলেন, সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট মামলায় একজন শিক্ষককে আটক করা হয়েছে। সরকারের এ ন্যাক্কারজনক কার্যকলাপ শুধু রাজনীতি নয় শিক্ষা ব্যবস্থাকেও ধ্বংস করার শামিল। জনগণ ঠিক সময়েই এর সঠিক জবাবদেবার জন্য প্রস্তুত রয়েছে।
মৌলভীবাজারের রাজনগরে পুলিশ এসল্ট মামলায় রাজনগর আইডিয়েল হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত ৩১ আগষ্ট শনিবার দুপুরে তার বাসায় থেকে রাজনগর থানার এসআই রতন দেবনাথ তাকে গ্রেপ্তার করেন। গত ১৪ এপ্রিল দিবাগত রাতে রাজনগরের খারপাড়া গ্রামে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের মামলায় তিনি প্রধান আসামী ছিলেন। রাজনগর থানার পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ১৪ এপ্রিল উপজেলার খারপাড়া (বাজুয়া) গ্রামে বাংলা নববর্ষ উদযাপন ও নবনির্মিত একটি ইনডোর উদ্বোধন উপলক্ষে ‘ইসলামি পাঠাগার ও সমাজ কল্যাণ ফোরামে’র উদ্যোগে সকাল থেকেই হামদ-নাত ও কেরাত প্রতিযোগীতার আয়োজন করা হয়েছিল। সন্ধার পরে বক্তব্যের মাধ্যমে শুরু সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এসময় রাত ১০টায় রাজনগর থানার ওসি মো. নাজিম উদ্দীনের নেতৃত্বে দুটি সিএনজি গাড়িতে করে একদল পুলিশ (পূর্বে দায়েরকৃত) শহীদ মিনার ভাংচুরের মামলার আসামী গ্রেপ্তার করতে যায়। পুলিশ ইনডোরের গেটে অবস্থান নিয়ে উপস্থিত দর্শকদের মাঝে তল্লাশি চালিয়ে কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করে। পরে আরো কয়েকজন আসামী গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসার পথে উপস্থিত দর্শক ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এঘটনায় রাজনগর থানার এসআই আবুল হোসেন বাদি হয়ে রাজনগর আইডিয়েল হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলামকে প্রধান আসামী করে মামলা (নং ১৭, তা: ১৫/৪/১৩ইং) করেন। ওই মামলায় রাজনগরস্থ তার বাসা থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এদিকে তাকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন জেলা জামায়াতের আমীর আব্দুল মান্নান, সেক্রেটারী ইঞ্জিনিয়ার শাহেদ আলী, পৌর জামায়াতের আমীর মো. ইয়ামীর আলী, সদর উপজেলা জামায়াতের আমীর মো. আলাউদ্দীন, সেক্রেটারী সৈয়দ তারেকুল হামীদ, রাজনগর উপজেলা জামায়াতের আমীর মাও. হারুনুর রশিদ তালুকদার, সেক্রেটারী আবুর রাইয়ান শাহিন প্রমুখ। বিবৃতিতে তারা বলেন, সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট মামলায় একজন শিক্ষককে আটক করা হয়েছে। সরকারের এ ন্যাক্কারজনক কার্যকলাপ শুধু রাজনীতি নয় শিক্ষা ব্যবস্থাকেও ধ্বংস করার শামিল। জনগণ ঠিক সময়েই এর সঠিক জবাবদেবার জন্য প্রস্তুত রয়েছে। রাজনগর সংবাদদাতা॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •