কমলগঞ্জে শ্মশানের জায়গা থেকে গাছ কর্র্র্তনের অভিযোগ

October 17, 2013, এই সংবাদটি ৩৩৯ বার পঠিত

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে হিন্দু সম্প্রদায়ের শ্মশানের জায়গা থেকে গাছ কর্তনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি নিয়ে হিন্দু সম্প্রদায় ও এলাকাবাসীর মধ্যে নানা প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। এ ব্যাপারে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কমলগঞ্জ উপজেলার পতনঊষার ইউনিয়নের রাজদিঘীরপার বাজারের হিন্দু সম্প্রদায়ের ব্যবহৃত শশ্মান ভূমি থেকে রাজদিঘীরপার বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি বিএনপি নেতা জগলুর রহমান চকদার জোরপূর্বক দলবল নিয়ে গত ১৩ অক্টোবর ভোরে একটি আম গাছ কর্তন করেন। সকালে গাছটিকে সাইজ করে ঠেলাগাড়িতে তোলার সময় স্থানীয়রা বাধা প্রদান করেন। শ্মশানের জায়গা থেকে গাছ কর্তনের ঘটনায় স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায় সহ এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। এদিকে সরকারি জায়গার বন্দবস্ত দখল দাবীদার মো. এনামূল হক জানান, রাজদিঘীরপার বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি জগলুর রহমান চকদার রাজদিঘিরপার বাজারের ১৫ শতক সরকারি জায়গা জোরপূর্বক দখল করে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করে রেখেছেন। তিনি শনিবার ভোরে জায়গা দখলের চেষ্টায় কাউকে না জানিয়ে জোরপূর্বকভাবে ভোরে একটি আম গাছ কর্তন করেন। গাছটি কর্তনের ফলে এলাকাবাসীর মধ্যে নানা প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। সরকারি জায়গা থেকে গাছ কর্তনের অভিযোগ এনে রোববার বিকেলে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে। অভিযুক্ত জগলুর রহমান চকদার এ প্রতিনিধিকে বলেন, গাছ কর্তনের সত্যতা স্বীকার করে শ্মশানের জায়গা কি না তিনি জানেন না। তবে রাজদিঘীর পার বাজারের ড্রেন সংস্কারের জন্য গাছটি কর্তন করা হয়। কমলগঞ্জ রাজকান্দি বন রেঞ্জ কর্মকর্তা প্রভাত কুসুম আচার্য্য বলেন, বন বিভাগের অনুমতি ছাড়া কোন গাছ করলে অবশ্যই তাকে পুলিশ কেইসের আওতায় পড়ে। এ ব্যাপারে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা জানান, বিষয়টি তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে হিন্দু সম্প্রদায়ের শ্মশানের জায়গা থেকে গাছ কর্তনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি নিয়ে হিন্দু সম্প্রদায় ও এলাকাবাসীর মধ্যে নানা প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। এ ব্যাপারে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কমলগঞ্জ উপজেলার পতনঊষার ইউনিয়নের রাজদিঘীরপার বাজারের হিন্দু সম্প্রদায়ের ব্যবহৃত শশ্মান ভূমি থেকে রাজদিঘীরপার বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি বিএনপি নেতা জগলুর রহমান চকদার জোরপূর্বক দলবল নিয়ে গত ১৩ অক্টোবর ভোরে একটি আম গাছ কর্তন করেন। সকালে গাছটিকে সাইজ করে ঠেলাগাড়িতে তোলার সময় স্থানীয়রা বাধা প্রদান করেন। শ্মশানের জায়গা থেকে গাছ কর্তনের ঘটনায় স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায় সহ এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। এদিকে সরকারি জায়গার বন্দবস্ত দখল দাবীদার মো. এনামূল হক জানান, রাজদিঘীরপার বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি জগলুর রহমান চকদার রাজদিঘিরপার বাজারের ১৫ শতক সরকারি জায়গা জোরপূর্বক দখল করে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করে রেখেছেন। তিনি শনিবার ভোরে জায়গা দখলের চেষ্টায় কাউকে না জানিয়ে জোরপূর্বকভাবে ভোরে একটি আম গাছ কর্তন করেন। গাছটি কর্তনের ফলে এলাকাবাসীর মধ্যে নানা প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। সরকারি জায়গা থেকে গাছ কর্তনের অভিযোগ এনে রোববার বিকেলে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে। অভিযুক্ত জগলুর রহমান চকদার এ প্রতিনিধিকে বলেন, গাছ কর্তনের সত্যতা স্বীকার করে শ্মশানের জায়গা কি না তিনি জানেন না। তবে রাজদিঘীর পার বাজারের ড্রেন সংস্কারের জন্য গাছটি কর্তন করা হয়। কমলগঞ্জ রাজকান্দি বন রেঞ্জ কর্মকর্তা প্রভাত কুসুম আচার্য্য বলেন, বন বিভাগের অনুমতি ছাড়া কোন গাছ করলে অবশ্যই তাকে পুলিশ কেইসের আওতায় পড়ে। এ ব্যাপারে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা জানান, বিষয়টি তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কমলগঞ্জ প্রতিনিধি॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •