কুলাউড়া মুসলিম এইড কমিউনিটি হাসপাতালে বিশ্ব এইডস দিবস পালন

December 6, 2013, এই সংবাদটি ২৪০ বার পঠিত

কুলাউড়া উপজেলাধীন ব্রাহ্মণবাজারস্থ মুসলিম এইড কমিউনিটি হাসপাতালে বিশ্ব এইডস দিবস উপলক্ষে গত রোববার আলোচনা সভা ও র‌্যালী অনুষ্টিত হয়। হাসপাতালের পিএমও ডাঃ ফয়েজ্ উল্লাহ ফাহিম এর সভাপতিত্বে ও এ্যডমিন এন্ড এইচআর বেলাল আহমদ চৌধুরীর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা ঃ ফরিদ আহমদ,ডা ঃ এমাজুর রহমান,ডাঃ পলাশ বিন,বিশিষ্ট সমাজসেবক মোঃ নজিবুর রহমান,মো ঃ সুহিন আল হাসান,মো ঃ সাইফুল ইসলাম,আব্দুল কুদ্দুছ,আব্দুল লতিফ প্রমুখ। বিশ্ব এইডস দিবসের আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, ১৯৮৮ সাল থেকে ঘাতক ব্যাধি এইডস প্রতিরোধের প্রত্যয় নিয়ে ১লা ডিসেম্বর বিশ্ব এইডস দিবস পালিত হয়। ১৯৮০ সালের গোড়ার দিকে নজরে আসা এ রোগ এখন সারা বিশ্বে মহামারী আকারে বিদ্যমান। এইচআইভি এইডস বর্তমান বিশ্বে এক ভয়াবহ আতঙ্ক। এইচআইভি একটি ভাইরাসের নাম,যা মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা নষ্টকারী ভাইরাস। এ ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হলে ধীরে ধীরে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা হারিয়ে যায়। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা না থাকায় এইডস রোগীর যক্ষèা, নিউমোনিয়া, ডায়রিয়া, ক্যান্সার ইত্যাদি যেকোনো অসুখ হতে পারে এবং অল্প দিনের মধ্যেই আক্রান্ত ব্যক্তি মারা যেতে পারে। তাই এ রোগের প্রতিরোধে গণসচেতনতা,সামাজিক,রাজনৈতিক ও ধর্মীয় আন্দোলন গড়ে তোলতে হবে।
কুলাউড়া উপজেলাধীন ব্রাহ্মণবাজারস্থ মুসলিম এইড কমিউনিটি হাসপাতালে বিশ্ব এইডস দিবস উপলক্ষে গত রোববার আলোচনা সভা ও র‌্যালী অনুষ্টিত হয়। হাসপাতালের পিএমও ডাঃ ফয়েজ্ উল্লাহ ফাহিম এর সভাপতিত্বে ও এ্যডমিন এন্ড এইচআর বেলাল আহমদ চৌধুরীর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা ঃ ফরিদ আহমদ,ডা ঃ এমাজুর রহমান,ডাঃ পলাশ বিন,বিশিষ্ট সমাজসেবক মোঃ নজিবুর রহমান,মো ঃ সুহিন আল হাসান,মো ঃ সাইফুল ইসলাম,আব্দুল কুদ্দুছ,আব্দুল লতিফ প্রমুখ। বিশ্ব এইডস দিবসের আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, ১৯৮৮ সাল থেকে ঘাতক ব্যাধি এইডস প্রতিরোধের প্রত্যয় নিয়ে ১লা ডিসেম্বর বিশ্ব এইডস দিবস পালিত হয়। ১৯৮০ সালের গোড়ার দিকে নজরে আসা এ রোগ এখন সারা বিশ্বে মহামারী আকারে বিদ্যমান। এইচআইভি এইডস বর্তমান বিশ্বে এক ভয়াবহ আতঙ্ক। এইচআইভি একটি ভাইরাসের নাম,যা মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা নষ্টকারী ভাইরাস। এ ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হলে ধীরে ধীরে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা হারিয়ে যায়। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা না থাকায় এইডস রোগীর যক্ষèা, নিউমোনিয়া, ডায়রিয়া, ক্যান্সার ইত্যাদি যেকোনো অসুখ হতে পারে এবং অল্প দিনের মধ্যেই আক্রান্ত ব্যক্তি মারা যেতে পারে। তাই এ রোগের প্রতিরোধে গণসচেতনতা,সামাজিক,রাজনৈতিক ও ধর্মীয় আন্দোলন গড়ে তোলতে হবে। কুলাউড়া অফিস॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •