মৌলভীবাজার জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি বশিরউদ্দিন আহমদ

December 22, 2013, এই সংবাদটি ৩৫০ বার পঠিত

জাতীয় পার্টি মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সভাপতি নওয়াব আলী আব্বাস খান এবং জেলা জাতীয় পার্টির সদস্য জনাব লুৎফুর রহমান চৌধুরী হেলাল দল ত্যাগ করে চলে যাওয়ার পরিপেক্ষিতে ২১ ডিসেম্বর শনিবার দুপুরে জাতীয় পার্টি মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সম্পাদক মন্ডলী ও উপজেলা কমিটির সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকবৃন্দের উপস্থিতে এক জরুরী সভা জেলা জাতীয় পার্টির সাধারন সম্পাদক জনাব সৈয়দ সাহাব উদ্দিন আহমদ- এর ঢাকা-সিলেট সড়কস্থ বাসভবনে জনাব সৈয়দ সাহাবউদ্দিন আহমদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বিগত ৭ই ডিসেম্বর ২০১৩ইং তারিখের সম্পাদক মন্ডলীর সভার সিদ্ধান্তের আলোকে ব্যাপক আলোচনা ও পর্য্যালোচনা ক্রমে জাতীয় পার্টির গঠনতন্ত্র মোতাবেক জাতীয় পার্টি, মৌলভীবাজার জেলা কমিটির ১নং সহ-সভাপতি জনাব বশিরউদ্দিন আহমদ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হিসাবে মৌলভীবাজার জেলা জাতীয় পার্টির সার্বিক দায়দায়িত্ব পালনের পূনরায় সিদ্ধান্ত গ্রহণক্রমে তাহার কাছে তিনির সম্মতিতে দলীয় গঠনতন্ত্র মোতাবেক দায়দায়িত্ব অর্পণ করা হয়। সভায় উপস্থিত সম্পাদক মন্ডলীর সদস্যবৃন্দ এবং উপজেলার সভাপতি, আহবায়ক ও সাধারন সম্পাদকবৃন্দ তাহাদের বক্তব্যে বলেন- আগামী ৫ই জানুয়ারী ২০১৪ইং তারিখের প্রহসন ও পাতানো ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচন হইতে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ সরে দাড়ানোর ঘোষনা দেওয়ার পর বিগত ১২ ডিসেম্বর ২০১৩ইং বৃহস্পতিবার রাত্রে অত্যান্ত অগনতান্ত্রিক ভাবে চিকিৎসার নামে সি,এম,এইচে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। তারই পরিপেক্ষিতে বক্তাগন বলেন- অতিসত্বর জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ কে অবরুদ্ধ হইতে নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবী জানানো হয়। নতুবা জাতীয় পার্টি, মৌলভীবাজার জেলা কমিটির হরতাল সহ ব্যাপক কর্মসূচী গ্রহণ করতে বাধ্য হইবে। বক্তাগন আরও বলেন, জাতীয় পার্টি যখন ৫ই জানুয়ারীর নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করে নাই সেহেতু জাতীয়পার্টির নাম ও মার্কা নিয়ে এখনও যাহারা প্রতিদ্ধিন্দতায় রহিয়াছেন তাহারা জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের সিদ্ধান্তের প্রতি শ্রদ্ধা দেখিয়ে অতিসত্ত্বর নির্বাচন হইতে সড়ে দাড়ানোর জন্য অনুরোধ জ্ঞাপন করছেন। এ ছাড়া সভায় আরো উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন জেলা জাতীয় পার্টির মো: দুরুদ আলী, এম. লুৎফুল হক, আব্দুর রকিব, ফজলে মৌলা চৌধুরী ফুয়াদ, রফিকুল আলম, মো: ফারুক আহমদ, এডভোকেট আফজল হোসেন, জানাব আলেকুর রহমান চৌধুরী, জনাব আক্তার মোহাম্মদ হোসেন, এডভোকেট মাহবুবুল আলম শামিম, মুফতি মির্জা আবু মোহাম্মদ বেগ, সৈয়দ রুমেন আলী, আব্দুল মতিন, লুৎফুর রহমান, নাসির আহমদ কাইয়ূম, এনামুল হক তালুকদার, মো. এহিয়া খান, মো. হাজির আলী, ডা. ইয়াসিন তালুকদার, মো. লুৎফুর রহমান ও বেগম রহিমা আক্তার সহ প্রমুখ।
জাতীয় পার্টি মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সভাপতি নওয়াব আলী আব্বাস খান এবং জেলা জাতীয় পার্টির সদস্য জনাব লুৎফুর রহমান চৌধুরী হেলাল দল ত্যাগ করে চলে যাওয়ার পরিপেক্ষিতে ২১ ডিসেম্বর শনিবার দুপুরে জাতীয় পার্টি মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সম্পাদক মন্ডলী ও উপজেলা কমিটির সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকবৃন্দের উপস্থিতে এক জরুরী সভা জেলা জাতীয় পার্টির সাধারন সম্পাদক জনাব সৈয়দ সাহাব উদ্দিন আহমদ- এর ঢাকা-সিলেট সড়কস্থ বাসভবনে জনাব সৈয়দ সাহাবউদ্দিন আহমদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বিগত ৭ই ডিসেম্বর ২০১৩ইং তারিখের সম্পাদক মন্ডলীর সভার সিদ্ধান্তের আলোকে ব্যাপক আলোচনা ও পর্য্যালোচনা ক্রমে জাতীয় পার্টির গঠনতন্ত্র মোতাবেক জাতীয় পার্টি, মৌলভীবাজার জেলা কমিটির ১নং সহ-সভাপতি জনাব বশিরউদ্দিন আহমদ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হিসাবে মৌলভীবাজার জেলা জাতীয় পার্টির সার্বিক দায়দায়িত্ব পালনের পূনরায় সিদ্ধান্ত গ্রহণক্রমে তাহার কাছে তিনির সম্মতিতে দলীয় গঠনতন্ত্র মোতাবেক দায়দায়িত্ব অর্পণ করা হয়। সভায় উপস্থিত সম্পাদক মন্ডলীর সদস্যবৃন্দ এবং উপজেলার সভাপতি, আহবায়ক ও সাধারন সম্পাদকবৃন্দ তাহাদের বক্তব্যে বলেন- আগামী ৫ই জানুয়ারী ২০১৪ইং তারিখের প্রহসন ও পাতানো ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচন হইতে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ সরে দাড়ানোর ঘোষনা দেওয়ার পর বিগত ১২ ডিসেম্বর ২০১৩ইং বৃহস্পতিবার রাত্রে অত্যান্ত অগনতান্ত্রিক ভাবে চিকিৎসার নামে সি,এম,এইচে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। তারই পরিপেক্ষিতে বক্তাগন বলেন- অতিসত্বর জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ কে অবরুদ্ধ হইতে নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবী জানানো হয়। নতুবা জাতীয় পার্টি, মৌলভীবাজার জেলা কমিটির হরতাল সহ ব্যাপক কর্মসূচী গ্রহণ করতে বাধ্য হইবে। বক্তাগন আরও বলেন, জাতীয় পার্টি যখন ৫ই জানুয়ারীর নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করে নাই সেহেতু জাতীয়পার্টির নাম ও মার্কা নিয়ে এখনও যাহারা প্রতিদ্ধিন্দতায় রহিয়াছেন তাহারা জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের সিদ্ধান্তের প্রতি শ্রদ্ধা দেখিয়ে অতিসত্ত্বর নির্বাচন হইতে সড়ে দাড়ানোর জন্য অনুরোধ জ্ঞাপন করছেন। এ ছাড়া সভায় আরো উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন জেলা জাতীয় পার্টির মো: দুরুদ আলী, এম. লুৎফুল হক, আব্দুর রকিব, ফজলে মৌলা চৌধুরী ফুয়াদ, রফিকুল আলম, মো: ফারুক আহমদ, এডভোকেট আফজল হোসেন, জানাব আলেকুর রহমান চৌধুরী, জনাব আক্তার মোহাম্মদ হোসেন, এডভোকেট মাহবুবুল আলম শামিম, মুফতি মির্জা আবু মোহাম্মদ বেগ, সৈয়দ রুমেন আলী, আব্দুল মতিন, লুৎফুর রহমান, নাসির আহমদ কাইয়ূম, এনামুল হক তালুকদার, মো. এহিয়া খান, মো. হাজির আলী, ডা. ইয়াসিন তালুকদার, মো. লুৎফুর রহমান ও বেগম রহিমা আক্তার সহ প্রমুখ। স্টাফ রিপোর্টার॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •