শ্রীমঙ্গলে পিকেটিংয়ের অভিযোগে তিন ছাত্রদলকর্মীকে জেল-জরিমানা

December 2, 2013, এই সংবাদটি ২৯৪ বার পঠিত

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার প্রতিবাদে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোটের ডাকে ৪৮ ঘন্টার অবরোধের প্রথম দিনে গাড়ী ভাংচুরসহ নানা অপ্রীতিকর ঘটনায় স্থবির হয়ে পড়েছে পর্যটন নগরী। পুলিশ পিকেটিং করার অভিযোগে কলেজ ছাত্রদলের ৩কর্মীকে আটক করেছে। আটককৃতরা হলেন রাশেদ আহমেদ ডন (২৫) ও সাঈদ তামিম (২৫) ও নুরু উদ্দিন পলাশ । আটককৃত সবাই শ্রীমঙ্গল শহর-শহরতলীর বাসিন্দা। গতকাল ২৬ নভেম্বর মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে শহরের মৌলভীবাজার রোডস্থ ও রেল গেইট এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। তবে শ্রীমঙ্গল পৌর সেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক সাহারাব ইসলাম রুহিন মুঠোফোনে আটককৃত সবাই কলেজ ছাত্রদলের কর্মী বলে সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। পরে তাৎক্ষনিক ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে আটককৃতদের জেল-জরিমানা করেছে উপজেলা নির্বাহী ম্যার্জিষ্টেট মোহাম্মদ আশফাকুল হক চৌধুরী শ্রীমঙ্গল থানার উপ-পরিদর্শক মিহির মুঠোফোনে সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন আটককৃত তিন ছাত্রদল কর্মীকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশফাকুল হক চৌধুরী ৫শ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১৫দিনের জেল জরিমানা করেছেন। তিনি বলেন পরে তাদেরকে মৌলভীবাজার কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। অপর দিকে ১৮দলীয় জোটের নেতাকর্মীরা শহরের মৌলভীবাজার রোড, হবিগঞ্জ রোড, ভানুগাছ রোড, সিন্দুরখান রোড, কলেজ রোড, শাপলাবাগ রেল লাইনের লেভেল ক্রসিংসহ বিভিন্ন সড়কে টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে পিকেটিং করেছে ১৮দলীয় জোট। পরে হবিগঞ্জ রোডস্থ এলাকা থেকে নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার প্রতিবাদে ও বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের মুক্তির দাবীতে ১৮দলীয় নেতা কর্মীদের এক বিক্ষোভ মিছিল শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলের দিকে উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম ইদ্রিস আলীর নেতৃত্বে বিশাল মিছিল বেরা করা হয়। এসময় মিছিলে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির নেতা মোছাব্বির আলী মুন্না, ছাত্রদল নেতা টিটু আহমেদ, যুবদল নেতা টিটু গাজী, সেচ্ছা সেবক দলের পৌর সভাপতি মহিউদ্দির ঝাড়– ও সাধারণ সাহারাব ইসলাম রুহিন, তাঁতীদল সভাপতি সেলিম আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক ইমাদ উদ্দন প্রমুখ।
মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার প্রতিবাদে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোটের ডাকে ৪৮ ঘন্টার অবরোধের প্রথম দিনে গাড়ী ভাংচুরসহ নানা অপ্রীতিকর ঘটনায় স্থবির হয়ে পড়েছে পর্যটন নগরী। পুলিশ পিকেটিং করার অভিযোগে কলেজ ছাত্রদলের ৩কর্মীকে আটক করেছে। আটককৃতরা হলেন রাশেদ আহমেদ ডন (২৫) ও সাঈদ তামিম (২৫) ও নুরু উদ্দিন পলাশ । আটককৃত সবাই শ্রীমঙ্গল শহর-শহরতলীর বাসিন্দা। গতকাল ২৬ নভেম্বর মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে শহরের মৌলভীবাজার রোডস্থ ও রেল গেইট এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। তবে শ্রীমঙ্গল পৌর সেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক সাহারাব ইসলাম রুহিন মুঠোফোনে আটককৃত সবাই কলেজ ছাত্রদলের কর্মী বলে সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। পরে তাৎক্ষনিক ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে আটককৃতদের জেল-জরিমানা করেছে উপজেলা নির্বাহী ম্যার্জিষ্টেট মোহাম্মদ আশফাকুল হক চৌধুরী শ্রীমঙ্গল থানার উপ-পরিদর্শক মিহির মুঠোফোনে সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন আটককৃত তিন ছাত্রদল কর্মীকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশফাকুল হক চৌধুরী ৫শ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১৫দিনের জেল জরিমানা করেছেন। তিনি বলেন পরে তাদেরকে মৌলভীবাজার কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। অপর দিকে ১৮দলীয় জোটের নেতাকর্মীরা শহরের মৌলভীবাজার রোড, হবিগঞ্জ রোড, ভানুগাছ রোড, সিন্দুরখান রোড, কলেজ রোড, শাপলাবাগ রেল লাইনের লেভেল ক্রসিংসহ বিভিন্ন সড়কে টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে পিকেটিং করেছে ১৮দলীয় জোট। পরে হবিগঞ্জ রোডস্থ এলাকা থেকে নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার প্রতিবাদে ও বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের মুক্তির দাবীতে ১৮দলীয় নেতা কর্মীদের এক বিক্ষোভ মিছিল শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলের দিকে উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম ইদ্রিস আলীর নেতৃত্বে বিশাল মিছিল বেরা করা হয়। এসময় মিছিলে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির নেতা মোছাব্বির আলী মুন্না, ছাত্রদল নেতা টিটু আহমেদ, যুবদল নেতা টিটু গাজী, সেচ্ছা সেবক দলের পৌর সভাপতি মহিউদ্দির ঝাড়– ও সাধারণ সাহারাব ইসলাম রুহিন, তাঁতীদল সভাপতি সেলিম আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক ইমাদ উদ্দন প্রমুখ। শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •